Dhaka ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লক্ষ্মীপুরের মেঘনায় ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:৪৯:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১
  • 597

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছে জেলা মৎস্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও নৌ পুলিশ মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে যৌথ অভিযান চালিয়ে এসব জাল জব্দ করে। তবে এসময় কোন জেলেকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এসময় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সরোওয়ার জামান ও নৌ-পুলিশ ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন অভিযান পরিচালনা করেন।

সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সরোওয়ার জামান জানান, মেঘনা নদীতে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিতে নিষিদ্ধ সময়ে মাছ শিকার থেকে জেলেদের বিরত রাখতে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান করে বিপুল সংখ্যক কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। পরে জব্দকৃত জালগুলো মজুচৌধুরীহাট মাছ ঘাটে এনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।
জাটকা ইলিশ রক্ষার্থে মার্চ এবং এপ্রিল দুই মাস মেঘনা নদীতে সকল প্রকার মাছ শিকার নিষিদ্ধ।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

দাঁতমারা সেলফি রোড়ে গাছের সঙ্গে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় নিহত ১

লক্ষ্মীপুরের মেঘনায় ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ

Update Time : ০৯:৪৯:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে ৬ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছে জেলা মৎস্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও নৌ পুলিশ মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে যৌথ অভিযান চালিয়ে এসব জাল জব্দ করে। তবে এসময় কোন জেলেকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এসময় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সরোওয়ার জামান ও নৌ-পুলিশ ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন অভিযান পরিচালনা করেন।

সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সরোওয়ার জামান জানান, মেঘনা নদীতে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিতে নিষিদ্ধ সময়ে মাছ শিকার থেকে জেলেদের বিরত রাখতে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মেঘনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান করে বিপুল সংখ্যক কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। পরে জব্দকৃত জালগুলো মজুচৌধুরীহাট মাছ ঘাটে এনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।
জাটকা ইলিশ রক্ষার্থে মার্চ এবং এপ্রিল দুই মাস মেঘনা নদীতে সকল প্রকার মাছ শিকার নিষিদ্ধ।