Dhaka ১১:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

থাইল্যান্ডে ১৯ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী আটক

  • Reporter Name
  • Update Time : ০২:৩৫:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪
  • 6

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অনুপ্রবশের অভিযোগে ১৯ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীকে আটক করেছে থাইল্যান্ডের পুলিশ। স্থানীয় জনসাধারণের কাছ থেকে এক ব্যক্তির ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ তাকে আটক করলে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইমিগ্রেশন পুলিশ বাকি ১৮ বাংলাদেশিকে আটক করে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম খাওসোদইংলিশকে থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর ডেপুটি কমিশনার পান্তানা জানান, ১৯ জনের পাসপোর্ট পরীক্ষা করে দেখা গেছে তারা সবাই বাংলাদেশি। পাসপোর্টগুলোর ১৫টিতে গত ৮ জানুয়ারি, ২টিতে ৯ জানুয়ারি থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর এন্ট্রি স্ট্যাম্প ছিল। ১৯টি পাসপোর্টেই ভিসা স্টিকার ছিল যা ইমিগ্রেশন ব্যুরোর মাধ্যমে পরীক্ষা করে ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়েছে।

আটকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে তারা কম্বোডিয়ায় ছিল এবং যারা তাদের কম্বোডিয়ায় থাকার ব্যবস্থা করেছিল সেই দালালরাই তাদের কাছ থেকে পাসপোর্টগুলো সংগ্রহ করেছিল থাই এন্ট্রি স্ট্যাম্প লাগানো জন্য, যাতে করে তারা মালয়শিয়ায় যেতে পারে। নরাথিওয়াত প্রাদেশিক ইমিগ্রেশন পুলিশ এবং তাক বাই থানা এই মানব পাচারকারী নেটওয়ার্কের বাকি সদস্যদের খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত শুরু করেছে।

২০২৩ সাল থেকে কম্বোডিয়ায় হয়ে থাইল্যান্ডে অনুপ্রবশকারী বাংলাদেশি সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তাছাড়া সম্প্রতি মানব পাচারকারী চক্রটি থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর ভুয়া এন্ট্রি স্ট্যাম্প ব্যাবহারের একাধিক প্রমাণ পাওয়া গেছে। তারা মালয়শিয়ার ভিসা আবেদনের কাজে এই ভুয়া সিল ব্যবহার করে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

নিউইয়র্কে সেইভ দ্য পিপল’র উদ্যোগে হালাল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

থাইল্যান্ডে ১৯ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী আটক

Update Time : ০২:৩৫:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অনুপ্রবশের অভিযোগে ১৯ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীকে আটক করেছে থাইল্যান্ডের পুলিশ। স্থানীয় জনসাধারণের কাছ থেকে এক ব্যক্তির ব্যাপারে অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ তাকে আটক করলে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইমিগ্রেশন পুলিশ বাকি ১৮ বাংলাদেশিকে আটক করে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম খাওসোদইংলিশকে থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর ডেপুটি কমিশনার পান্তানা জানান, ১৯ জনের পাসপোর্ট পরীক্ষা করে দেখা গেছে তারা সবাই বাংলাদেশি। পাসপোর্টগুলোর ১৫টিতে গত ৮ জানুয়ারি, ২টিতে ৯ জানুয়ারি থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর এন্ট্রি স্ট্যাম্প ছিল। ১৯টি পাসপোর্টেই ভিসা স্টিকার ছিল যা ইমিগ্রেশন ব্যুরোর মাধ্যমে পরীক্ষা করে ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়েছে।

আটকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে তারা কম্বোডিয়ায় ছিল এবং যারা তাদের কম্বোডিয়ায় থাকার ব্যবস্থা করেছিল সেই দালালরাই তাদের কাছ থেকে পাসপোর্টগুলো সংগ্রহ করেছিল থাই এন্ট্রি স্ট্যাম্প লাগানো জন্য, যাতে করে তারা মালয়শিয়ায় যেতে পারে। নরাথিওয়াত প্রাদেশিক ইমিগ্রেশন পুলিশ এবং তাক বাই থানা এই মানব পাচারকারী নেটওয়ার্কের বাকি সদস্যদের খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত শুরু করেছে।

২০২৩ সাল থেকে কম্বোডিয়ায় হয়ে থাইল্যান্ডে অনুপ্রবশকারী বাংলাদেশি সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তাছাড়া সম্প্রতি মানব পাচারকারী চক্রটি থাই ইমিগ্রেশন ব্যুরোর ভুয়া এন্ট্রি স্ট্যাম্প ব্যাবহারের একাধিক প্রমাণ পাওয়া গেছে। তারা মালয়শিয়ার ভিসা আবেদনের কাজে এই ভুয়া সিল ব্যবহার করে।