Dhaka ১১:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লক্ষীপুরে ডাকাতি শেষে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়িচাপায় নিহত ১

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:১২:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩
  • 5696

লক্ষীপুর প্রতিনিধি : লক্ষীপুরে বোমা ফাটিয়ে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ডাকাতদলের পিকআপ ভ্যান চাপায় সফিউল্যা (৭০) নামে এক পথচারী নিহত হয়েছে।
ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ২০টি ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ডাকাতদলের ব্যবহৃত পিকআপসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

৭ জুন বুধবার রাত সোয়া ৮টার দিকে শহরের কলেজরোড এলাকার চৌধুরী সুপার মার্কেটের আর কে শিল্পালয়ে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। নিহত পথচারী সফি উল্যা পৌরসভার পশ্চিম লক্ষীপুরের ইটেরপুল এলাকার পানাম বাড়ির বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অপুকে কুপিয়ে তার দোকানে স্বর্ণালংকার লুটে নিয়ে যায় ডাকাতদল। এসময় অপুর ছেলে অমিকেও তারা পিটিয়ে আহত করে। পালিয়ে যাওয়ার সময়ও তারা ককটেল ফাটাতে থাকে। ঘটনাস্থলের পাশে মোহাম্মদ আলী সড়ক দিয়ে তারা পালিয়ে যায়।

এদিকে পালিয়ে যাওয়ার পথে বেপরোয়া গতির পিকআপভ্যান চাপায় লক্ষীপুর-রায়পুর সড়কের ইটেরপুল এলাকায় ৩ জন আহত হয়। এরমধ্যে সফি উল্যা ও ইসমাইল গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতার আনলে সফি উল্যাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। জেলা জুয়েলার্স সমিতির সভাপতি হরিহর পাল বলেন, অপুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করেছে ডাকাতদল। তার দোকানে সকল স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে। সদর হাসপাতালের (আরএমও) চিকিৎসক ডা. আনোয়ার হোসেন বলেন, পিকআপ চাপায় এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। আহত একজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আহত স্বর্ণ ব্যবসায়ী অপুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

Tag :

লক্ষীপুরে ডাকাতি শেষে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়িচাপায় নিহত ১

Update Time : ০৯:১২:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩

লক্ষীপুর প্রতিনিধি : লক্ষীপুরে বোমা ফাটিয়ে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ডাকাতদলের পিকআপ ভ্যান চাপায় সফিউল্যা (৭০) নামে এক পথচারী নিহত হয়েছে।
ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ২০টি ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ডাকাতদলের ব্যবহৃত পিকআপসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

৭ জুন বুধবার রাত সোয়া ৮টার দিকে শহরের কলেজরোড এলাকার চৌধুরী সুপার মার্কেটের আর কে শিল্পালয়ে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। নিহত পথচারী সফি উল্যা পৌরসভার পশ্চিম লক্ষীপুরের ইটেরপুল এলাকার পানাম বাড়ির বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অপুকে কুপিয়ে তার দোকানে স্বর্ণালংকার লুটে নিয়ে যায় ডাকাতদল। এসময় অপুর ছেলে অমিকেও তারা পিটিয়ে আহত করে। পালিয়ে যাওয়ার সময়ও তারা ককটেল ফাটাতে থাকে। ঘটনাস্থলের পাশে মোহাম্মদ আলী সড়ক দিয়ে তারা পালিয়ে যায়।

এদিকে পালিয়ে যাওয়ার পথে বেপরোয়া গতির পিকআপভ্যান চাপায় লক্ষীপুর-রায়পুর সড়কের ইটেরপুল এলাকায় ৩ জন আহত হয়। এরমধ্যে সফি উল্যা ও ইসমাইল গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতার আনলে সফি উল্যাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। জেলা জুয়েলার্স সমিতির সভাপতি হরিহর পাল বলেন, অপুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করেছে ডাকাতদল। তার দোকানে সকল স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে। সদর হাসপাতালের (আরএমও) চিকিৎসক ডা. আনোয়ার হোসেন বলেন, পিকআপ চাপায় এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। আহত একজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আহত স্বর্ণ ব্যবসায়ী অপুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।