Dhaka ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তথ্য গোপন করে জামিন নিলেন দাঁতমারার প্রবাসী মাসুদ হত্যা মামলার আসামি

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:৩৮:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩
  • 7

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউনিয়নের বালুটিলায় প্রবাসী মাসুদ হত্যা মামলার আসামি স্থানীয় যুবলীগের সভাপতি আকতার হোসেন রিমান্ডের তথ্য গোপন করে জামিন নিয়েছেন। এ ঘটনায় বাদী পক্ষ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করেছেন।

এ প্রসঙ্গে বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট ইউসুফ আলম মাসুদ বলেন, আসামি আকতার হোসেন নিম্ন আদালতে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর ও রিমান্ড আদেশের বিরুদ্ধে রিভিশন সংক্রান্ত তথ্য গোপন করে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। এতে আইনের ব্যত্যয় ঘটেছে। আমরা তার জামিন আদেশের বিরুদ্ধে মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করেছি।

জানা গেছে, গত ২৫ মার্চ ফটিকছড়ি উপজেলার দাঁতমারা ইউনিয়নের বালুটিলা বাজার মসজিদ থেকে তারাবির নামাজ শেষে বের হওয়ার সময় প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাতে মাসুদুর রহমানকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ভূজপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছোট ভাই মাহফুজুর রহমান বাবু।
হত্যাকাণ্ডের দিনই আসামি শামীম হোসেন ও দেলোয়ার হোসেনকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। গত ১১ জুন বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আকতারকে কারাগারে পাঠায় আদালত।

মামলার বাদী মাহফুজুর রহমান বাবু জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তার ভাই নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন। আসামিরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে ছিলেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আকতার হোসেনের নেতৃত্বে আসামিরা তার ভাইকে মসজিদ থেকে তারাবির নামাজ শেষে বের হওয়ার পর নির্মমভাবে উপর্যুপরি কুপিয়ে প্রকাশ্যে খুন করে। এখন আসামি আকতার হোসেন জামিনে এসে মামলা তুলে নিতে আমাদের হুমকি দিচ্ছে। তার সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায় মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে আতংক ছড়াচ্ছে। মামলার সাক্ষীদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

Tag :

তথ্য গোপন করে জামিন নিলেন দাঁতমারার প্রবাসী মাসুদ হত্যা মামলার আসামি

Update Time : ১২:৩৮:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুলাই ২০২৩

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউনিয়নের বালুটিলায় প্রবাসী মাসুদ হত্যা মামলার আসামি স্থানীয় যুবলীগের সভাপতি আকতার হোসেন রিমান্ডের তথ্য গোপন করে জামিন নিয়েছেন। এ ঘটনায় বাদী পক্ষ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করেছেন।

এ প্রসঙ্গে বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট ইউসুফ আলম মাসুদ বলেন, আসামি আকতার হোসেন নিম্ন আদালতে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর ও রিমান্ড আদেশের বিরুদ্ধে রিভিশন সংক্রান্ত তথ্য গোপন করে উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। এতে আইনের ব্যত্যয় ঘটেছে। আমরা তার জামিন আদেশের বিরুদ্ধে মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করেছি।

জানা গেছে, গত ২৫ মার্চ ফটিকছড়ি উপজেলার দাঁতমারা ইউনিয়নের বালুটিলা বাজার মসজিদ থেকে তারাবির নামাজ শেষে বের হওয়ার সময় প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাতে মাসুদুর রহমানকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ভূজপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছোট ভাই মাহফুজুর রহমান বাবু।
হত্যাকাণ্ডের দিনই আসামি শামীম হোসেন ও দেলোয়ার হোসেনকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। গত ১১ জুন বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আকতারকে কারাগারে পাঠায় আদালত।

মামলার বাদী মাহফুজুর রহমান বাবু জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তার ভাই নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন। আসামিরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে ছিলেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আকতার হোসেনের নেতৃত্বে আসামিরা তার ভাইকে মসজিদ থেকে তারাবির নামাজ শেষে বের হওয়ার পর নির্মমভাবে উপর্যুপরি কুপিয়ে প্রকাশ্যে খুন করে। এখন আসামি আকতার হোসেন জামিনে এসে মামলা তুলে নিতে আমাদের হুমকি দিচ্ছে। তার সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায় মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে আতংক ছড়াচ্ছে। মামলার সাক্ষীদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।