Dhaka ০১:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে বন গবেষণাগারের সরকারী কর্মচারী মুছা ও তৌহিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:০২:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩
  • 2857

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের ষোলশহর রেলস্টেশন সংলগ্ন বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছার ও তার ছেলে তৌহিদের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টা মামলা, চাঁদাবাজি, চুরি, ছিনতাই, মাদক, ইয়াবাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের বাবা ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে পড়ছেন বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র অফিসার ও কর্মচারীরা। মোহাম্মদ মুছার ছেলে তৌহিদকে পুলিশ বিভিন্ন সময় গ্রেফতার করে জেলে পাঠালেও বের হয়ে ফের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে জানান বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তা কর্মচারীরা জানান। সম্প্রতি বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রিসার্চ অফিসার মোহাম্মদ জহিরুল আলম এর উপর হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। সম্প্রতি মোহাম্মদ মুছা ও তার ছেলে তৌসিফকে বন গবেষণা ইনস্টিটিউট এ কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষায় চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছার ছেলে তৌহিদও অংশগ্রহণ করেন। লিখিত পরীক্ষায় তিনি পাস করতে পারেননি। ১৫/৩/২০২৩ নিয়োগ বোর্ডের সদস্য সচিব বিভাগীয় কর্মকর্তা প্রশাসন ডাক্তার মাহবুবুর রহমানের কক্ষে প্রবেশ করে মুছা তাকে হুমকি দেন। জানা গেছে গত ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ৮টা ১৫ মিনিটের সময় এশার নামায আদায়ের জন্য তিনি বন গবেষণা ইনস্টিটিউট মসজিদে প্রবেশ কালে মুছার ছেলে তৌহিদের নেতৃত্বে কয়েকজন ব্যক্তি তার ওপর হামলা চালায়। এ সময় তাঁর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছাকে সরকারী চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

চট্টগ্রামে বন গবেষণাগারের সরকারী কর্মচারী মুছা ও তৌহিদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

Update Time : ১০:০২:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৩

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের ষোলশহর রেলস্টেশন সংলগ্ন বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছার ও তার ছেলে তৌহিদের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টা মামলা, চাঁদাবাজি, চুরি, ছিনতাই, মাদক, ইয়াবাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের বাবা ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে পড়ছেন বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র অফিসার ও কর্মচারীরা। মোহাম্মদ মুছার ছেলে তৌহিদকে পুলিশ বিভিন্ন সময় গ্রেফতার করে জেলে পাঠালেও বের হয়ে ফের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে জানান বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তা কর্মচারীরা জানান। সম্প্রতি বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রিসার্চ অফিসার মোহাম্মদ জহিরুল আলম এর উপর হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। সম্প্রতি মোহাম্মদ মুছা ও তার ছেলে তৌসিফকে বন গবেষণা ইনস্টিটিউট এ কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষায় চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছার ছেলে তৌহিদও অংশগ্রহণ করেন। লিখিত পরীক্ষায় তিনি পাস করতে পারেননি। ১৫/৩/২০২৩ নিয়োগ বোর্ডের সদস্য সচিব বিভাগীয় কর্মকর্তা প্রশাসন ডাক্তার মাহবুবুর রহমানের কক্ষে প্রবেশ করে মুছা তাকে হুমকি দেন। জানা গেছে গত ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ৮টা ১৫ মিনিটের সময় এশার নামায আদায়ের জন্য তিনি বন গবেষণা ইনস্টিটিউট মসজিদে প্রবেশ কালে মুছার ছেলে তৌহিদের নেতৃত্বে কয়েকজন ব্যক্তি তার ওপর হামলা চালায়। এ সময় তাঁর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মোহাম্মদ মুছাকে সরকারী চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।