Dhaka ১০:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাঁতমারার বালুটিলায় যুবলীগ সভাপতির হাতে আওয়ামী লীগ নেতার ভাই খুন

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:৪২:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩
  • 3117

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আক্তারের হামলায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক, মাহফুজুর রহমান বাবু ও ছাত্রলীগ নেতা মির্জা মাহাবুবুর রহমান সুজন এর ভাই নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মাসুদ তিনি বালুটিলার বাসিন্দা। শনিবার ২৫ মার্চ তারাবি নামাজের পর দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বিগত ইউপি নির্বাচনে বালুটিলা ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইউসুফ মেম্বারের পক্ষ নেয়ায় তার প্রতিশোধ হিসেবে পরাজিত ইউপি সদস্য আক্তার হোসেন এ হামলা চালায়। জানা গেছে ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়ন নির্বাচনের পক্ষ বিপক্ষ নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। অভিযুক্ত আক্তার কোন কাউন্সিল বা সম্মেলন ছাড়া সম্প্রতি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির দায়িত্ব পায়। স্থানীয়রা জানান, আক্তার ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হওয়ার পর থেকে আওয়ামী সরকারের নাম ভাঙিয়ে এলাকায়
মাদক ব্যবসা,চাঁদাবাজি, লুটপাটসহ ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে আসছে। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সাথে জড়িত আক্তার ও তার ভাইকে এখনো আটক করা হয়নি।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

আগামীকাল সোমবার পবিত্র ঈদুল আজহা

দাঁতমারার বালুটিলায় যুবলীগ সভাপতির হাতে আওয়ামী লীগ নেতার ভাই খুন

Update Time : ০৮:৪২:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

চট্টগ্রাম প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আক্তারের হামলায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক, মাহফুজুর রহমান বাবু ও ছাত্রলীগ নেতা মির্জা মাহাবুবুর রহমান সুজন এর ভাই নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মাসুদ তিনি বালুটিলার বাসিন্দা। শনিবার ২৫ মার্চ তারাবি নামাজের পর দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বিগত ইউপি নির্বাচনে বালুটিলা ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ইউসুফ মেম্বারের পক্ষ নেয়ায় তার প্রতিশোধ হিসেবে পরাজিত ইউপি সদস্য আক্তার হোসেন এ হামলা চালায়। জানা গেছে ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়ন নির্বাচনের পক্ষ বিপক্ষ নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। অভিযুক্ত আক্তার কোন কাউন্সিল বা সম্মেলন ছাড়া সম্প্রতি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির দায়িত্ব পায়। স্থানীয়রা জানান, আক্তার ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হওয়ার পর থেকে আওয়ামী সরকারের নাম ভাঙিয়ে এলাকায়
মাদক ব্যবসা,চাঁদাবাজি, লুটপাটসহ ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে আসছে। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সাথে জড়িত আক্তার ও তার ভাইকে এখনো আটক করা হয়নি।