Dhaka ০২:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিক নাদিমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় লক্ষীপুরে প্রতিবাদ সভা

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৭:৩০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০২৩
  • 12

আনোয়ারের রহমান বাবুল, লক্ষীপুর: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের জামালপুর ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট গোলাম রাব্বানি নাদিমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় লক্ষীপুরে প্রতিবাদ সভা করা হয়েছে। প্রতিবাদ সভা থেকে সাংবাদিক নাদিম হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন বক্তারা। একই সাথে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হত্যাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে। ১৫ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের আয়োজনে জেলায় কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা অংশ নিয়ে এ হুশিয়ারি দেন।

লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম পাবেল সভাপতিত্বে ও কালবেলার প্রতিনিধি মীর ফরহাদ হোসেন সুমনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন ভোরের কাগজের কামাল হোসেন, করতোয়ার একিউএম শাহাবুদ্দিন, ভোরের ডাকের কামাল উদ্দিন, দেশটিভির সাইফুল ইসলাম স্বপন, সময় টিভির মাজহারুল আনোয়ার টিপু, কালের কণ্ঠের কাজল কায়েস, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড’র সানা উল্লাহ সানু, আর টিভির সাহা, বিজনেস বাংলাদেশের নাজিম উদ্দিন রানা প্রমুখ। বক্তারা বলেন, দুর্নীতিবাজ ও লুটেরাদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করলেই সাংবাদিকদের ওপর দুস্কৃতিকারীরা হামলে পড়ে। জামালপুরের ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ আলম বাবুর অপকর্মের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক নাদিমকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নাদিম হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। অতীত থেকেই সাংবাদিকরা নির্যাতিত হয়ে আসছে। আর কত প্রতিবাদ করবো। এ নির্যাতন কবে বন্ধ হবে। আমরাতো দেশের মানুষের জন্য কাজ করে আসছি। সাংবাদিকরা কখনোই দেশবিরোধী কাজ করে না। আর কোন সাংবাদিক ভাইকে হত্যা-নির্যাতন ও মিথ্যা মামলার শিকার হতে দেখতে চাই না।

অবিলম্বে এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানানো হয়। লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম পাবেল বলেন, ২৪ ঘন্টার মধ্যে নাদিম হত্যার মূল হোতাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি। তা না হলে লক্ষীপুর থেকে মানববন্ধন ও কলম বিরতিসহ কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, সময় টিভির প্রতিনিধি মাহবুবুর আলম ভূঁইয়া, জিটিভির নিজাম উদ্দিন, সিনিয়র সাংবাদিক আনোয়র রহমান বাবুল, ডেইলি সানের রেজাউল করিম পারভেজ, মানবজমিনের মো. ইউছুফ, বাংলানিউজের মো. নিজাম উদ্দিন, বাংলা টিভির জামাল উদ্দিন রাফি, চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের সোহেল রানা, বণিকবার্তার রাকিব হোসেন রনি, শেয়ারবিজের জুনায়েদ আহম্মেদ, সারা বাংলার মাহমুদুর রহমান মঞ্জু, ঢাকামেইলের রুবেল হোসেন, আলোকিত সকালের রাজীব হোসেন রাজু, ভোরের মালঞ্চের সাগর ওয়াহিদ ফরহাদ ও লাখো কণ্ঠের নুর মোহাম্মদ প্রমুখ। প্রসঙ্গত, গত ১০ মে জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার সাধুরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। এ নিয়ে সংবাদ করেন গোলাম রাব্বানী নাদিম। পরে ১৪ মে তার স্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে আরও একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ২০ মে সাবিনা ইয়াসমিন তার স্বামী বাবুকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার অথবা পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। এ নিয়েও সংবাদ করেন নাদিম। এর আগে গত ১৪ মে ময়মনসিংহ সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে জামালপুরের নাদিমসহ দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করেন চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু। ১৪ জুন আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন। অভিযুক্ত বাবু সাধুরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

সাংবাদিক নাদিমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় লক্ষীপুরে প্রতিবাদ সভা

Update Time : ০৭:৩০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন ২০২৩

আনোয়ারের রহমান বাবুল, লক্ষীপুর: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের জামালপুর ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট গোলাম রাব্বানি নাদিমকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় লক্ষীপুরে প্রতিবাদ সভা করা হয়েছে। প্রতিবাদ সভা থেকে সাংবাদিক নাদিম হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন বক্তারা। একই সাথে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে হত্যাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে। ১৫ জুন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের আয়োজনে জেলায় কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা অংশ নিয়ে এ হুশিয়ারি দেন।

লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম পাবেল সভাপতিত্বে ও কালবেলার প্রতিনিধি মীর ফরহাদ হোসেন সুমনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন ভোরের কাগজের কামাল হোসেন, করতোয়ার একিউএম শাহাবুদ্দিন, ভোরের ডাকের কামাল উদ্দিন, দেশটিভির সাইফুল ইসলাম স্বপন, সময় টিভির মাজহারুল আনোয়ার টিপু, কালের কণ্ঠের কাজল কায়েস, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড’র সানা উল্লাহ সানু, আর টিভির সাহা, বিজনেস বাংলাদেশের নাজিম উদ্দিন রানা প্রমুখ। বক্তারা বলেন, দুর্নীতিবাজ ও লুটেরাদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করলেই সাংবাদিকদের ওপর দুস্কৃতিকারীরা হামলে পড়ে। জামালপুরের ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ আলম বাবুর অপকর্মের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিক নাদিমকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নাদিম হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। অতীত থেকেই সাংবাদিকরা নির্যাতিত হয়ে আসছে। আর কত প্রতিবাদ করবো। এ নির্যাতন কবে বন্ধ হবে। আমরাতো দেশের মানুষের জন্য কাজ করে আসছি। সাংবাদিকরা কখনোই দেশবিরোধী কাজ করে না। আর কোন সাংবাদিক ভাইকে হত্যা-নির্যাতন ও মিথ্যা মামলার শিকার হতে দেখতে চাই না।

অবিলম্বে এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানানো হয়। লক্ষীপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম পাবেল বলেন, ২৪ ঘন্টার মধ্যে নাদিম হত্যার মূল হোতাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি। তা না হলে লক্ষীপুর থেকে মানববন্ধন ও কলম বিরতিসহ কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, সময় টিভির প্রতিনিধি মাহবুবুর আলম ভূঁইয়া, জিটিভির নিজাম উদ্দিন, সিনিয়র সাংবাদিক আনোয়র রহমান বাবুল, ডেইলি সানের রেজাউল করিম পারভেজ, মানবজমিনের মো. ইউছুফ, বাংলানিউজের মো. নিজাম উদ্দিন, বাংলা টিভির জামাল উদ্দিন রাফি, চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের সোহেল রানা, বণিকবার্তার রাকিব হোসেন রনি, শেয়ারবিজের জুনায়েদ আহম্মেদ, সারা বাংলার মাহমুদুর রহমান মঞ্জু, ঢাকামেইলের রুবেল হোসেন, আলোকিত সকালের রাজীব হোসেন রাজু, ভোরের মালঞ্চের সাগর ওয়াহিদ ফরহাদ ও লাখো কণ্ঠের নুর মোহাম্মদ প্রমুখ। প্রসঙ্গত, গত ১০ মে জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার সাধুরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। এ নিয়ে সংবাদ করেন গোলাম রাব্বানী নাদিম। পরে ১৪ মে তার স্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে আরও একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ২০ মে সাবিনা ইয়াসমিন তার স্বামী বাবুকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার অথবা পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। এ নিয়েও সংবাদ করেন নাদিম। এর আগে গত ১৪ মে ময়মনসিংহ সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে জামালপুরের নাদিমসহ দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করেন চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু। ১৪ জুন আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন। অভিযুক্ত বাবু সাধুরপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।