Dhaka ০১:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিটিয়ে বাঘ মেরে গাছে ঝুলিয়ে রাখলো এলাকাবাসী

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৩:৪৪:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 19

সূর্যোদয় ডেস্ক: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে একটি চিতা বাঘকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে এলাকাবাসী। পরে তারা মৃত বাঘটিকে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।

২০ ডিসেম্বর বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মাগুরা এলাকার আকালিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে সকালে ওই চিতা বাঘের আক্রমণে শিশুসহ ৪ জন আহত হন। আহতরা হলেন, মাগুরা ইউনিয়নের আকালিপাড়া গ্রামের বুদু মিয়ার ছেলে বুলেট মিয়া (২৮), একই এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে ফেরদৌস আলম (৩৫), ছকমাল হোসেনের ছেলে নায়েব আলী (৪০) ও মাগুরা উত্তর পাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার মেয়ে জান্নাতুল (৮)। স্থানীয় ও

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাঘটি কোথা থেকে ও কীভাবে লোকালয়ে এসেছে তা তারা জানে না। বুধবার বেলা ১১টায় রংপুর-দিনাজপুর তিস্তা সেচ ক্যানেলের সেতু সংলগ্ন একটি গাছে চিতা বাঘটিকে বসে থাকতে দেখে শিশুরা চিৎকার দেয়। তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী বাঘ দেখার জন্য ভিড় জমায় ও তখন প্রশাসনের মাধ্যমে বন বিভাগকে খবর দেওয়া হয়। বন বিভাগ থেকে কেউ এসে পৌঁছানোর আগেই বাঘটি গাছ থেকে লাফ দিয়ে নেমে শিশুসহ চারজনকে আক্রমণ করে। পরে স্থানীয়রা বাঘটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে। এরপর তারা মৃত বাঘটিকে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। বাঘটিকে এক নজর দেখার জন্য হাজার হাজার উৎসুক জনতার ভিড় জমায়।

বাঘের আক্রমণে আহত ব্যক্তিদেরকে স্থানীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ীর কাজলা থেকে শনিরআখড়া

পিটিয়ে বাঘ মেরে গাছে ঝুলিয়ে রাখলো এলাকাবাসী

Update Time : ০৩:৪৪:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২০ ডিসেম্বর ২০২৩

সূর্যোদয় ডেস্ক: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে একটি চিতা বাঘকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে এলাকাবাসী। পরে তারা মৃত বাঘটিকে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।

২০ ডিসেম্বর বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মাগুরা এলাকার আকালিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে সকালে ওই চিতা বাঘের আক্রমণে শিশুসহ ৪ জন আহত হন। আহতরা হলেন, মাগুরা ইউনিয়নের আকালিপাড়া গ্রামের বুদু মিয়ার ছেলে বুলেট মিয়া (২৮), একই এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে ফেরদৌস আলম (৩৫), ছকমাল হোসেনের ছেলে নায়েব আলী (৪০) ও মাগুরা উত্তর পাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার মেয়ে জান্নাতুল (৮)। স্থানীয় ও

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাঘটি কোথা থেকে ও কীভাবে লোকালয়ে এসেছে তা তারা জানে না। বুধবার বেলা ১১টায় রংপুর-দিনাজপুর তিস্তা সেচ ক্যানেলের সেতু সংলগ্ন একটি গাছে চিতা বাঘটিকে বসে থাকতে দেখে শিশুরা চিৎকার দেয়। তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী বাঘ দেখার জন্য ভিড় জমায় ও তখন প্রশাসনের মাধ্যমে বন বিভাগকে খবর দেওয়া হয়। বন বিভাগ থেকে কেউ এসে পৌঁছানোর আগেই বাঘটি গাছ থেকে লাফ দিয়ে নেমে শিশুসহ চারজনকে আক্রমণ করে। পরে স্থানীয়রা বাঘটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে। এরপর তারা মৃত বাঘটিকে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। বাঘটিকে এক নজর দেখার জন্য হাজার হাজার উৎসুক জনতার ভিড় জমায়।

বাঘের আক্রমণে আহত ব্যক্তিদেরকে স্থানীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।