Dhaka ১১:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পটিয়া-১২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সামশুল হক এগিয়ে

তপন তালুকদার, সূর্যোদয়: চট্টগ্রাম শহরের নিকটবর্তী শিক্ষা ও ইতিহাস ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ পটিয়া উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন নিয়ে চট্টগ্রাম-১২ আসন। আসন্ন ৭ জানুয়ারীর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১২ আসন পটিয়ায় জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী এগিয়ে রয়েছেন। পটিয়ার সাধারণ জনগন এবং আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের একাধিক নেতা-কর্মীরা আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে পর পর তিনবার নির্বাচিত এমপি হুইপ শামসুল হক চৌধুরীকে অপ্রতিদ্ধন্ধী প্রার্থী মনে করছেন। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনকে তৃণমূল পর্যন্ত সুসংগঠিত করার পাশাপাশি নির্বাচন কেন্দ্রিক কাজগুলো এবং সাধারণ মানুষের পাশে থেকে অন্তহীন ভালোবাসা দিয়ে মন জয় করে জননন্দিত নেতা হয়ে উঠেন হুইপ শামসুল হক চৌধুরী।

পটিয়া আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাদের দাবি পটিয়ার নজিরবিহীন উন্নয়নে হুইপ শামসুল হক চৌধুরী সম্ভাবনা জাগিয়েছে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে চতুর্থবারের মত মনোনয়ন পেলে আসনটি উপহার দেবার চ্যালেঞ্জ করেছেন শামসুল হক চৌধুরী নিজেই।

জানা যায়, ১৯৮৮ সালে এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন জাতীয় পার্টির শিল্পবিষয়ক উপদেষ্টা সিরাজুল ইসলাম। এর আগে এ আসন থেকে দুইবার নির্বাচন করে পটিয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র ও দক্ষিণ জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সামশুল আলম মাস্টার। এর পরবর্তী ৯১ সাল থেকে তিন মেয়াদে এ আসনটি ছিল বিএনপির দখলে। ২০০৮ সালের আগ পর্যন্ত আসনটি বিএনপির ঘাঁটি হিসেবেই খুব পরিচিত ছিল। দীর্ঘ ৩৭ বছর পর ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর ঐতিহাসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়ী হলে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মো. সামশুল হক চৌধুরী। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর থেকে হাতছাড়া হয়ে যাওয়া পটিয়া আসনটি হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর হাত ধরেই ফিরে পায় আওয়ামী লীগ। তাই একটি সুত্রের দাবী আসন্ন ৭ জানুয়ারীর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১২ আসন পটিয়ায় জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাবেন।

সামশুল হক চৌধুরী নির্বাচন প্রস্তুতি এবং মনোনয়ন সম্পর্কে দৈনিক সূর্যোদয়কে বলেন, জাতির পিতার কন্যা ২০০৮ সালে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। আমিই প্রথম আসনটি ছিনিয়ে আনি। গনতন্ত্রের মানষ কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশির্বাদ নিয়ে পর পর তিনবার এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে এলাকাবাসীর চাহিদা মোতাবেক পরিকল্পনা অনুয়ায়ী উন্নয়নকাজ করেছি। বিগত সকল সংসদ সদস্যর তুলনায় শতগুণ বেশি উন্নয়ন কাজ করেছি।

এদিকে হুইপ শামসুল হক চৌধুরী ছাড়াও আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও বিজিএমই-এর সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির ও আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

চীন বাংলাদেশকে দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ প্রদানে সম্মত হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

পটিয়া-১২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সামশুল হক এগিয়ে

Update Time : ০৯:১৬:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০২৩

তপন তালুকদার, সূর্যোদয়: চট্টগ্রাম শহরের নিকটবর্তী শিক্ষা ও ইতিহাস ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ পটিয়া উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন নিয়ে চট্টগ্রাম-১২ আসন। আসন্ন ৭ জানুয়ারীর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১২ আসন পটিয়ায় জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী এগিয়ে রয়েছেন। পটিয়ার সাধারণ জনগন এবং আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের একাধিক নেতা-কর্মীরা আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে পর পর তিনবার নির্বাচিত এমপি হুইপ শামসুল হক চৌধুরীকে অপ্রতিদ্ধন্ধী প্রার্থী মনে করছেন। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনকে তৃণমূল পর্যন্ত সুসংগঠিত করার পাশাপাশি নির্বাচন কেন্দ্রিক কাজগুলো এবং সাধারণ মানুষের পাশে থেকে অন্তহীন ভালোবাসা দিয়ে মন জয় করে জননন্দিত নেতা হয়ে উঠেন হুইপ শামসুল হক চৌধুরী।

পটিয়া আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাদের দাবি পটিয়ার নজিরবিহীন উন্নয়নে হুইপ শামসুল হক চৌধুরী সম্ভাবনা জাগিয়েছে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে চতুর্থবারের মত মনোনয়ন পেলে আসনটি উপহার দেবার চ্যালেঞ্জ করেছেন শামসুল হক চৌধুরী নিজেই।

জানা যায়, ১৯৮৮ সালে এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন জাতীয় পার্টির শিল্পবিষয়ক উপদেষ্টা সিরাজুল ইসলাম। এর আগে এ আসন থেকে দুইবার নির্বাচন করে পটিয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র ও দক্ষিণ জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি সামশুল আলম মাস্টার। এর পরবর্তী ৯১ সাল থেকে তিন মেয়াদে এ আসনটি ছিল বিএনপির দখলে। ২০০৮ সালের আগ পর্যন্ত আসনটি বিএনপির ঘাঁটি হিসেবেই খুব পরিচিত ছিল। দীর্ঘ ৩৭ বছর পর ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর ঐতিহাসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়ী হলে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মো. সামশুল হক চৌধুরী। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর থেকে হাতছাড়া হয়ে যাওয়া পটিয়া আসনটি হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর হাত ধরেই ফিরে পায় আওয়ামী লীগ। তাই একটি সুত্রের দাবী আসন্ন ৭ জানুয়ারীর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১২ আসন পটিয়ায় জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাবেন।

সামশুল হক চৌধুরী নির্বাচন প্রস্তুতি এবং মনোনয়ন সম্পর্কে দৈনিক সূর্যোদয়কে বলেন, জাতির পিতার কন্যা ২০০৮ সালে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। আমিই প্রথম আসনটি ছিনিয়ে আনি। গনতন্ত্রের মানষ কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আশির্বাদ নিয়ে পর পর তিনবার এ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে এলাকাবাসীর চাহিদা মোতাবেক পরিকল্পনা অনুয়ায়ী উন্নয়নকাজ করেছি। বিগত সকল সংসদ সদস্যর তুলনায় শতগুণ বেশি উন্নয়ন কাজ করেছি।

এদিকে হুইপ শামসুল হক চৌধুরী ছাড়াও আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও বিজিএমই-এর সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির ও আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম।