Dhaka ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মহেশখালীর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৪:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুলাই ২০২৩
  • 18

কক্সবাজার প্রতিনিধি : দীর্ঘ প্রতীক্ষিত কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। ২৯ জুলাই শনিবার দুপুর সোয়া ১২টা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ শুরু হয়। মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের এমডি আবুল কালাম আজাদ, কোল পাওয়ারের চিফ ইঞ্জিনিয়ার সাইফুর রহমান, সাইট ইঞ্জিনিয়ার মনোয়ার হোসেন, রোকনজ্জামানসহ একটি টিম উৎপাদনের কাজ শুরু করে বলে জানিয়েছেন সিকিউরিটি অফিসার আলফাজ উদ্দিন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দুপুর সোয়া ১২টার দিকে মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু হলে চুল্লি থেকে ধোঁয়া বের হয়। এভাবে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ শুরু হয়। প্রথম দিনে তেল দিয়ে ১৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তা জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হওয়ার কথা। কয়েক ঘণ্টা চালু রাখার পর চুল্লির কার্যকারিতা সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে। কোনো ঝামেলাহীন চুল্লি চলমান থাকলে নিয়মিত বিদ্যুৎ উৎপাদন চালু থাকবে। আগামী ৪ সেপ্টেম্বর থেকে কয়লা দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করা হবে। এরই মধ্যে দুই লাখ টন কয়লা সংরক্ষণ রয়েছে বলে জানা যায়। মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের সম্মিলিত উৎপাদন ক্ষমতা এক হাজার ২০০ মেগাওয়াট।

কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা ইউনিয়নে এক হাজার ৬০৮ একর জমির ওপর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের জন্য ২০১৪ সালে বাংলাদেশ সরকার এবং জাপানের সাহায্য সংস্থা জাইকার মধ্যে চুক্তি হয়। প্রায় ৫১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ হয় মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রটি।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

দেশের সব স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

মহেশখালীর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু

Update Time : ০৪:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুলাই ২০২৩

কক্সবাজার প্রতিনিধি : দীর্ঘ প্রতীক্ষিত কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। ২৯ জুলাই শনিবার দুপুর সোয়া ১২টা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ শুরু হয়। মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের এমডি আবুল কালাম আজাদ, কোল পাওয়ারের চিফ ইঞ্জিনিয়ার সাইফুর রহমান, সাইট ইঞ্জিনিয়ার মনোয়ার হোসেন, রোকনজ্জামানসহ একটি টিম উৎপাদনের কাজ শুরু করে বলে জানিয়েছেন সিকিউরিটি অফিসার আলফাজ উদ্দিন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দুপুর সোয়া ১২টার দিকে মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু হলে চুল্লি থেকে ধোঁয়া বের হয়। এভাবে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ শুরু হয়। প্রথম দিনে তেল দিয়ে ১৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তা জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হওয়ার কথা। কয়েক ঘণ্টা চালু রাখার পর চুল্লির কার্যকারিতা সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে। কোনো ঝামেলাহীন চুল্লি চলমান থাকলে নিয়মিত বিদ্যুৎ উৎপাদন চালু থাকবে। আগামী ৪ সেপ্টেম্বর থেকে কয়লা দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করা হবে। এরই মধ্যে দুই লাখ টন কয়লা সংরক্ষণ রয়েছে বলে জানা যায়। মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের সম্মিলিত উৎপাদন ক্ষমতা এক হাজার ২০০ মেগাওয়াট।

কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা ইউনিয়নে এক হাজার ৬০৮ একর জমির ওপর মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের জন্য ২০১৪ সালে বাংলাদেশ সরকার এবং জাপানের সাহায্য সংস্থা জাইকার মধ্যে চুক্তি হয়। প্রায় ৫১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ হয় মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রটি।