Dhaka ০৭:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুবাইয়ে দুর্ঘটনায় আহত প্রবাসী চিকিৎসার দুই মাস ১০ দিন পর মৃত্যু

মুহাম্মদ এরশাদুল হক, দুবাই থেকে: সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়ার দুই মাস ১০ দিন পর বাংলাদেশি তরুণ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেনের (৪০) মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (২৮ জুন) সকাল ৭টায় দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।নিহত ইকবালের বাড়ি রাউজান পৌরসভার সুলতানপুর গ্রামের কাজীপাড়ায়। তার বাবার নাম মোহাম্মদ সুলতান মেম্বার।নিহতের বড় ভাই মোহাম্মদ টিপু মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। জানাগেছে, গত ১৮ এপ্রিল ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বন্ধুদের সাথে বেড়াতে যান ইকবাল। এসময় দুবাইয়ের আল মারসা স্ট্রিটের মারিনা মলের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় মাথায় গুরুতর আঘাত নিয়ে কোমায় যান তিনি। এরপর থেকে ইকবাল হাসপাতালের আইসিইউতে নিবিড় পরিচর্যায় ছিলেন। অবশেষে ২৮ জুন শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।
জানাগেছে আবুধাবির হামেদ সেন্টারে তার একটি ইলেকট্রনিক্স ও গেমসের দোকান ছিল। করোনাকালে তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার তিনি চাকরি জীবনে ফিরে যান। বর্তমানে তার লাশ দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালের হিমঘরে রয়েছে। প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে তার মরদেহ পাঠানো হবে রাউজানের বাড়ীতে। মৃত্যুকালে ইকবাল তিন বছরের শিশু পুত্র ও স্ত্রী রেখে গেছেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

চট্টগ্রামে আন্দোলনকারীদের উপর ছাত্রলীগের হামলায় এক শিক্ষার্থীসহ দুইজন নিহত

দুবাইয়ে দুর্ঘটনায় আহত প্রবাসী চিকিৎসার দুই মাস ১০ দিন পর মৃত্যু

Update Time : ০৩:১১:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০২৪

মুহাম্মদ এরশাদুল হক, দুবাই থেকে: সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়ার দুই মাস ১০ দিন পর বাংলাদেশি তরুণ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেনের (৪০) মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার (২৮ জুন) সকাল ৭টায় দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।নিহত ইকবালের বাড়ি রাউজান পৌরসভার সুলতানপুর গ্রামের কাজীপাড়ায়। তার বাবার নাম মোহাম্মদ সুলতান মেম্বার।নিহতের বড় ভাই মোহাম্মদ টিপু মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। জানাগেছে, গত ১৮ এপ্রিল ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বন্ধুদের সাথে বেড়াতে যান ইকবাল। এসময় দুবাইয়ের আল মারসা স্ট্রিটের মারিনা মলের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় মাথায় গুরুতর আঘাত নিয়ে কোমায় যান তিনি। এরপর থেকে ইকবাল হাসপাতালের আইসিইউতে নিবিড় পরিচর্যায় ছিলেন। অবশেষে ২৮ জুন শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।
জানাগেছে আবুধাবির হামেদ সেন্টারে তার একটি ইলেকট্রনিক্স ও গেমসের দোকান ছিল। করোনাকালে তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার তিনি চাকরি জীবনে ফিরে যান। বর্তমানে তার লাশ দুবাইয়ের সৌদি জার্মান হাসপাতালের হিমঘরে রয়েছে। প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে তার মরদেহ পাঠানো হবে রাউজানের বাড়ীতে। মৃত্যুকালে ইকবাল তিন বছরের শিশু পুত্র ও স্ত্রী রেখে গেছেন।