Dhaka ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওমানের মাস্কাট সিটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত

মামুন আহমেদ, ওমান ব্যুরো প্রধান: ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় মোহাম্মদ শফিউল আলম (৪৫) নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। ২ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে মাস্কাট সিটির কুরুমে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শফিউল আলমের বাড়ি চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার কাঞ্চনগর ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামে। জানা যায়, মোহাম্মদ শফিউল আলম পেশায় নির্মাণশ্রমিক।

দীর্ঘ ৯ বছর ধরে তিনি মাস্কাট সিটির কুরুমে ভিসাহীন অবৈধভাবে বসবাস করে আসছিলেন। প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার সকালে শফিউল ভবন নির্মাণকাজে যান মাস্কাট মদিনা কাবুজ এলাকায়। কাজ শেষে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এক সহকর্মীসহ ফিরছিলেন বাসায়। তারা বাসার অদূরে গাড়ি থেমে নেমে যান। পরে আমান উল্লাহ সড়ক পার হতে পারলেও শফিউল আলম সড়কের মাঝে যেতেই দ্রুতগতির একটি প্রাইভেটকার তাকে চাপা দেয়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী কৌলা হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। কাঞ্চনগর প্রবাসী মানব কল্যাণ সংস্থার সাবেক সভাপতি আবদুস সাত্তার বলেন, শফি ভাই সারাদিন রোজা রেখে নির্মাণশ্রমিকের কাজ করেছিলেন। হয়ত অনেক বেশি ক্লান্ত থাকায় সড়ক পারাপারের সময় দ্রুতগতির গাড়ি দেখতে পারেননি। ঘাতক গাড়ির চালক ছিলেন ভারতীয় একজন নারী।

পুলিশ গাড়িটি জব্দ করেছে। তিনি বলেন, শফিউল আলম প্রবাসে একজন সংগঠকও ছিলেন। তিনি ছিলেন কাঞ্চনগর প্রবাসী মানব কল্যাণ সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

নিহত শফিউল আলমের ১০ ও ১২ বছর বয়সী দুই ছেলে রয়েছে। ভিসা জটিলতার কারণে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে তিনি দেশের ফিরতে পারেননি শফিউল আলম। তার পরিবারের চাওয়া, অন্তত তার লাশটি যেন দেশের মাটিতে দাফন করা হয়।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

দেশের সব স্কুল-কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

ওমানের মাস্কাট সিটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত

Update Time : ০২:৩৬:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ এপ্রিল ২০২৪

মামুন আহমেদ, ওমান ব্যুরো প্রধান: ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় মোহাম্মদ শফিউল আলম (৪৫) নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। ২ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে মাস্কাট সিটির কুরুমে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শফিউল আলমের বাড়ি চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার কাঞ্চনগর ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামে। জানা যায়, মোহাম্মদ শফিউল আলম পেশায় নির্মাণশ্রমিক।

দীর্ঘ ৯ বছর ধরে তিনি মাস্কাট সিটির কুরুমে ভিসাহীন অবৈধভাবে বসবাস করে আসছিলেন। প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার সকালে শফিউল ভবন নির্মাণকাজে যান মাস্কাট মদিনা কাবুজ এলাকায়। কাজ শেষে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এক সহকর্মীসহ ফিরছিলেন বাসায়। তারা বাসার অদূরে গাড়ি থেমে নেমে যান। পরে আমান উল্লাহ সড়ক পার হতে পারলেও শফিউল আলম সড়কের মাঝে যেতেই দ্রুতগতির একটি প্রাইভেটকার তাকে চাপা দেয়। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী কৌলা হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। কাঞ্চনগর প্রবাসী মানব কল্যাণ সংস্থার সাবেক সভাপতি আবদুস সাত্তার বলেন, শফি ভাই সারাদিন রোজা রেখে নির্মাণশ্রমিকের কাজ করেছিলেন। হয়ত অনেক বেশি ক্লান্ত থাকায় সড়ক পারাপারের সময় দ্রুতগতির গাড়ি দেখতে পারেননি। ঘাতক গাড়ির চালক ছিলেন ভারতীয় একজন নারী।

পুলিশ গাড়িটি জব্দ করেছে। তিনি বলেন, শফিউল আলম প্রবাসে একজন সংগঠকও ছিলেন। তিনি ছিলেন কাঞ্চনগর প্রবাসী মানব কল্যাণ সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

নিহত শফিউল আলমের ১০ ও ১২ বছর বয়সী দুই ছেলে রয়েছে। ভিসা জটিলতার কারণে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে তিনি দেশের ফিরতে পারেননি শফিউল আলম। তার পরিবারের চাওয়া, অন্তত তার লাশটি যেন দেশের মাটিতে দাফন করা হয়।