Dhaka ০৮:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সারজায় জহিরুল ইসলামের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত

মুহাম্মদ এরশাদুল হক, দুবাই থেকে: দুবাই নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন বলেছেন, ২০২৩ সালে ৪৮৭ জন প্রবাসী বাংলাদেশি এখানে মৃত্যুবরণ করেছে। এ বছর জুন পর্যন্ত প্রায় ৩০০ জন মৃত্যু বরণ করেন। মৃত্যুর হারও কিন্তু বাড়ছে। এটি হচ্ছে প্রবাসীদের জন্য সবচেয়ে বেদনাদায়ক। গত ৩০ জুন রবিবার সারজা বাংলাদেশ কমিটি কর্তৃক শারজা হুদায়বিয়া রেস্টুরেন্ট হল রুমে মরহুম জহিরুল ইসলামের স্মরণে আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, যারা লিগ্যাল না শুধুমাত্র তাদের জন্য এ সমস্যাটা হয়। কিন্তু যাদের বিএম কার্ড আছে তাদের জন্য কোন সমস্যাই নেই। যাদের প্রবাসী কল্যাণ কার্ড নেই তারা এটি করে নেবেন। মৃত্যু তো কখন আসবে কেউ জানে না। সুতরাং এ কার্ডটি থাকলে কোন ধরনের সমস্যা হয় না। বাংলাদেশ সমিতির সাবেক সভাপতি সরাফত আলীর সভাপতিত্বে ও সহ-সভাপতি ইসমাইল গণি চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী, প্রকৌশলী আবু জাফর চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, সিআইপি বদরুল ইসলাম চৌধুরী, আলহাজ ইয়াকুব সৈনিক, কাজী মোহাম্মদ ওসমান, জালাল উদ্দিন মদিনা, মোহাম্মদ আজিম উদ্দিন, মাওলানা ফজলুল কবির চৌধুরী, মোহাম্মদ ইউছুপ, মাজাহারুল ইসলাম মাহবুব প্রমুখ। শোক সভায় বক্তব্য রাখেন আরব আমিরাত প্রবাসী সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম তালুকদার। আরো বক্তব্য রাখেন মরহুমের সন্তান সাইফুল ইসলাম, মাহফুজুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম নবাব, মোঃ আবুল কাশেম, আব্দুল গফুর, জুলফিকার ওসমান, নুরুল আবছার,হাজী শফিকুর রহমান, সিআইপি মাহাবুব আলম মানিক, শাহাদাত হোসেন, মোহাম্মদ আজিম উদ্দিন, কামাল হোসেন সুমন, সিআইপি ইব্রাহিম ওসমান আপ্লাতুন, নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক আলমগীর অপু সহ অনেকে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

কোটা আন্দোলনে সংঘর্ষে সারাদেশে নিহত ৫

সারজায় জহিরুল ইসলামের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত

Update Time : ১২:৫৭:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুলাই ২০২৪

মুহাম্মদ এরশাদুল হক, দুবাই থেকে: দুবাই নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেন বলেছেন, ২০২৩ সালে ৪৮৭ জন প্রবাসী বাংলাদেশি এখানে মৃত্যুবরণ করেছে। এ বছর জুন পর্যন্ত প্রায় ৩০০ জন মৃত্যু বরণ করেন। মৃত্যুর হারও কিন্তু বাড়ছে। এটি হচ্ছে প্রবাসীদের জন্য সবচেয়ে বেদনাদায়ক। গত ৩০ জুন রবিবার সারজা বাংলাদেশ কমিটি কর্তৃক শারজা হুদায়বিয়া রেস্টুরেন্ট হল রুমে মরহুম জহিরুল ইসলামের স্মরণে আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, যারা লিগ্যাল না শুধুমাত্র তাদের জন্য এ সমস্যাটা হয়। কিন্তু যাদের বিএম কার্ড আছে তাদের জন্য কোন সমস্যাই নেই। যাদের প্রবাসী কল্যাণ কার্ড নেই তারা এটি করে নেবেন। মৃত্যু তো কখন আসবে কেউ জানে না। সুতরাং এ কার্ডটি থাকলে কোন ধরনের সমস্যা হয় না। বাংলাদেশ সমিতির সাবেক সভাপতি সরাফত আলীর সভাপতিত্বে ও সহ-সভাপতি ইসমাইল গণি চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী, প্রকৌশলী আবু জাফর চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, সিআইপি বদরুল ইসলাম চৌধুরী, আলহাজ ইয়াকুব সৈনিক, কাজী মোহাম্মদ ওসমান, জালাল উদ্দিন মদিনা, মোহাম্মদ আজিম উদ্দিন, মাওলানা ফজলুল কবির চৌধুরী, মোহাম্মদ ইউছুপ, মাজাহারুল ইসলাম মাহবুব প্রমুখ। শোক সভায় বক্তব্য রাখেন আরব আমিরাত প্রবাসী সাংবাদিক সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম তালুকদার। আরো বক্তব্য রাখেন মরহুমের সন্তান সাইফুল ইসলাম, মাহফুজুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম নবাব, মোঃ আবুল কাশেম, আব্দুল গফুর, জুলফিকার ওসমান, নুরুল আবছার,হাজী শফিকুর রহমান, সিআইপি মাহাবুব আলম মানিক, শাহাদাত হোসেন, মোহাম্মদ আজিম উদ্দিন, কামাল হোসেন সুমন, সিআইপি ইব্রাহিম ওসমান আপ্লাতুন, নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক আলমগীর অপু সহ অনেকে।