Dhaka ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাহাড় ধসের ঘটনায় খাগড়াছড়ির সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রামের যোগাযোগ বন্ধ

  • Reporter Name
  • Update Time : ১২:১২:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪
  • 27

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা: টানা বৃষ্টিতে খাগড়াছড়ির আলুটিলার সাপাহার এলাকায় পাহাড় ধসের কারণে ঢাকা-চট্টগ্রামের সঙ্গে খাগড়াছড়ির যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ কারণে আটকা পড়েছেন পর্যটকেরা। আজ ২ জুলাই মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ভোরে সাপাহারা এলাকায় পাহাড়ের মাটি ধসে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত যান চলাচল স্বাভাবিক হয়নি। এছাড়া দীঘিনালা-লংগদু সড়কের হেডকোয়ার্টার এলাকায় সড়ক ডুবে যাওয়ার রাঙামাটির লংগদুর সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। ডুবে গেছে মেরুং বাজার। টানা বর্ষণে দীঘিনালার মেরুং ইউনিয়ন ও কবাখালি ইউনিয়নে প্রায় ২৫ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। টানা বর্ষণে মাইনী নদীর পানি বেড়ে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে, খাগড়াছড়ি সাজেক সড়কের বাঘাইহাটে সড়ক ডুবে যাওয়ায় সাজেকের সাথে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছেন পর্যটকেরা। এর আগে আবহাওয়াবিদ ড. আবুল কালাম মল্লিক বলেন, ভারী বা অতিবৃষ্টি হবে কয়েকদিন। এর ফলে চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি, বান্দরবান, কক্সবাজার এসব এলাকার পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের শঙ্কা রয়েছে। খাগড়াছড়ি ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের লিডার মো. জসিমউদ্দীন বলেন, সাপমারা এলাকায় সড়কের মাটি সরানোর কাজ চলছে। খাগড়াছড়িতে বৃষ্টি চলমান রয়েছে। বৃষ্টি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত তলিয়ে যাওয়া সড়কগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল সম্ভব হবে না।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

সংঘর্ষে রণক্ষেত্র যাত্রাবাড়ীর কাজলা থেকে শনিরআখড়া

পাহাড় ধসের ঘটনায় খাগড়াছড়ির সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রামের যোগাযোগ বন্ধ

Update Time : ১২:১২:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা: টানা বৃষ্টিতে খাগড়াছড়ির আলুটিলার সাপাহার এলাকায় পাহাড় ধসের কারণে ঢাকা-চট্টগ্রামের সঙ্গে খাগড়াছড়ির যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ কারণে আটকা পড়েছেন পর্যটকেরা। আজ ২ জুলাই মঙ্গলবার ভোর ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, ভোরে সাপাহারা এলাকায় পাহাড়ের মাটি ধসে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত যান চলাচল স্বাভাবিক হয়নি। এছাড়া দীঘিনালা-লংগদু সড়কের হেডকোয়ার্টার এলাকায় সড়ক ডুবে যাওয়ার রাঙামাটির লংগদুর সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। ডুবে গেছে মেরুং বাজার। টানা বর্ষণে দীঘিনালার মেরুং ইউনিয়ন ও কবাখালি ইউনিয়নে প্রায় ২৫ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। টানা বর্ষণে মাইনী নদীর পানি বেড়ে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে, খাগড়াছড়ি সাজেক সড়কের বাঘাইহাটে সড়ক ডুবে যাওয়ায় সাজেকের সাথে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছেন পর্যটকেরা। এর আগে আবহাওয়াবিদ ড. আবুল কালাম মল্লিক বলেন, ভারী বা অতিবৃষ্টি হবে কয়েকদিন। এর ফলে চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি, বান্দরবান, কক্সবাজার এসব এলাকার পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের শঙ্কা রয়েছে। খাগড়াছড়ি ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্সের লিডার মো. জসিমউদ্দীন বলেন, সাপমারা এলাকায় সড়কের মাটি সরানোর কাজ চলছে। খাগড়াছড়িতে বৃষ্টি চলমান রয়েছে। বৃষ্টি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত তলিয়ে যাওয়া সড়কগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল সম্ভব হবে না।