Dhaka ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটের বালাগঞ্জে তীব্র গরমে জনজীবন অতিষ্ট

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:৫০:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪
  • 21

হেলাল আহমদ, বালাগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি: সিলেটের বালাগঞ্জে প্রচন্ড গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রাণীকুলের মধ্যেও শুরু হয়েছে হাঁসফাঁস অবস্থা। আগুন ঝরা রোদ থেকে বাঁচতে মানুষ ছায়ায় আশ্রয় নিচ্ছে, তাতেও নেই শান্তি। গরমে মানুষ থেকে শুরু করে প্রাণীকুল সবাই চাতক পাখির মতো তাকিয়ে থাকেন বৃষ্টির দিকে। ভাদ্র মাসের শুরুতে ঝড় বৃষ্টি থাকলেও মাঝামাঝিতে এসে তাপপ্রবাহ বইছে অবিরাম।

তাপমাত্রা ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠলে তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ ধরা হয়। ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে বলা হয় মাঝারি আর ৪০ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়। এরপর ৪২ ডিগ্রির উপরে উঠলে তাকে বলা হয় অতি তীব্র তাপপ্রবাহ। চারদিকে ছড়াচ্ছে সূর্যের প্রচ- উত্তাপ। ফলে,প্রতিদিনই বাড়ছে তাপমাত্রা। এতে শিশু ও বৃদ্ধরা দুর্বিষহ দিন অতিবাহিত করছেন। আর কর্মজীবী মানুষের নাকাল অবস্থা। মানুষের পাশাপাশি পশু-পাখিও হাঁসফাঁস করছে। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। প্রখর রোদে মাটি ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে। ঠিক দুপুরে রাস্তাঘাট যেনো জনশূন্য হয়ে যাচ্ছে। সবাই যেনো নিরিবিলি আর গাছতলার মৃদু বাতাসের সন্ধান খোঁজছেন।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার, বালাগঞ্জ রোড, কুশিয়ারা রোড, বালাগঞ্জ তাজপুর রোড, বালাগঞ্জ সুলতান পুর রোডসহ বেশ কয়েকটি রাস্তার পাশে গাছের নিচে বসে রয়েছেন লোকজন। অন্যদিকে তীব্র গরম থেকে স্বস্তি পেতে রসালো ফল বাঙ্গী, তরমুজ, মাল্টা, কমলালেবু, আনারস কিনছে গরমে অতিষ্ঠ মানুষজন। সবকিছু মিলে অসহনীয় গরমে আসলেই অতীষ্ঠ বালাগঞ্জে জনজীবন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

রাজধানীর মতিঝিলে লক্ষ্মী নারায়ণ জিউ মন্দিরের ২০০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার

সিলেটের বালাগঞ্জে তীব্র গরমে জনজীবন অতিষ্ট

Update Time : ১০:৫০:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

হেলাল আহমদ, বালাগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি: সিলেটের বালাগঞ্জে প্রচন্ড গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রাণীকুলের মধ্যেও শুরু হয়েছে হাঁসফাঁস অবস্থা। আগুন ঝরা রোদ থেকে বাঁচতে মানুষ ছায়ায় আশ্রয় নিচ্ছে, তাতেও নেই শান্তি। গরমে মানুষ থেকে শুরু করে প্রাণীকুল সবাই চাতক পাখির মতো তাকিয়ে থাকেন বৃষ্টির দিকে। ভাদ্র মাসের শুরুতে ঝড় বৃষ্টি থাকলেও মাঝামাঝিতে এসে তাপপ্রবাহ বইছে অবিরাম।

তাপমাত্রা ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে উঠলে তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ ধরা হয়। ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে বলা হয় মাঝারি আর ৪০ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়। এরপর ৪২ ডিগ্রির উপরে উঠলে তাকে বলা হয় অতি তীব্র তাপপ্রবাহ। চারদিকে ছড়াচ্ছে সূর্যের প্রচ- উত্তাপ। ফলে,প্রতিদিনই বাড়ছে তাপমাত্রা। এতে শিশু ও বৃদ্ধরা দুর্বিষহ দিন অতিবাহিত করছেন। আর কর্মজীবী মানুষের নাকাল অবস্থা। মানুষের পাশাপাশি পশু-পাখিও হাঁসফাঁস করছে। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। প্রখর রোদে মাটি ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে। ঠিক দুপুরে রাস্তাঘাট যেনো জনশূন্য হয়ে যাচ্ছে। সবাই যেনো নিরিবিলি আর গাছতলার মৃদু বাতাসের সন্ধান খোঁজছেন।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার, বালাগঞ্জ রোড, কুশিয়ারা রোড, বালাগঞ্জ তাজপুর রোড, বালাগঞ্জ সুলতান পুর রোডসহ বেশ কয়েকটি রাস্তার পাশে গাছের নিচে বসে রয়েছেন লোকজন। অন্যদিকে তীব্র গরম থেকে স্বস্তি পেতে রসালো ফল বাঙ্গী, তরমুজ, মাল্টা, কমলালেবু, আনারস কিনছে গরমে অতিষ্ঠ মানুষজন। সবকিছু মিলে অসহনীয় গরমে আসলেই অতীষ্ঠ বালাগঞ্জে জনজীবন।