Dhaka ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রায় কমলাপুর স্টেশনে বেড়েছে যাত্রীর চাপ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০১:০৯:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪
  • 24

শহীদুল হাকিম চৌধূরী: ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রার পঞ্চম দিনে কমলাপুরে বেড়েছে যাত্রীর চাপ। অতিরিক্ত যাত্রী চাপ সামাল দিতে ট্রেন না বাড়ালে অতিরিক্ত কোচ যুক্ত করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

৭ এপ্রিল রোববার সকাল থেকেই কমলাপুর স্টেশনে কড়াকড়ি মধ্যে হাজার হাজার যাত্রী স্টেশনে প্রবেশ করছেন। টিকিট ছাড়া কোন যাত্রীকে স্টেশনে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছেনা। বিনা টিকিটের যাত্রীদের ফেরত পাঠাচ্ছেন রেল কর্মকর্তারা। টিকিট ব্যতীত কেউ ঢুকতে না পারায় স্বস্তিতে স্টেশনে ঢুকতে ও ট্রেনে উঠতে পারছেন যাত্রীরা। স্টেশনের ভেতরে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যাত্রীরা স্টেশনে বসে অপেক্ষা করছেন। এখন পর্যন্ত ঈদযাত্রার ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় হয়নি।

সকাল ৬টা থেকে ঢাকা (কমলাপুর) রেলস্টেশন থেকে সকাল সাড়ে পর্যন্ত ছেড়ে গেছে ১৮টি ট্রেন। আজ রোববার আন্তঃনগর ৪২, লোকাল-কমিউটার ২৫টি ট্রেন ও ১টি স্পেশাল ট্রেন কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে যাবে। ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শাহাদাৎ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সকাল থেকে এ পর্যন্ত ১৮টি ট্রেন যথাসময়ে ছেড়ে গেছে। অন্যদিকে সাড়ে ১০টায় কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস, বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে সিলেটের উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস, বেলা সাড়ে ১১টায় তারাকান্দির উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে অগ্নিবীণা এক্সপ্রেস এবং বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে খুলনার উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস। প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে ৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে গত ২৫ মার্চ ও ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ। ঈদের আগে আন্তঃনগর ট্রেনের ৭ এপ্রিলের টিকিট ২৮ মার্চ, ৮ এপ্রিলের টিকিট ২৯ মার্চ ও ৯ এপ্রিলের টিকিট ৩০ মার্চ বিক্রি করা হয়। এছাড়া চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে।

এদিকে ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রার বিষয়ে ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক (ম্যানেজার) মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার বলেছেন, প্রতিদিন ট্রেনে করে ঢাকা ছাড়ছেন প্রায় দুই লাখ মানুষ। আজ ঢাকা ও আশপাশের স্টেশন থেকে ৬৯টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। এর মধ্যে ৪৪টি আন্তঃনগর ট্রেনে সিটের যাত্রী ৩৩ হাজার ৫০০ জন। এ যাত্রীর অনুপাতে ২৫ শতাংশ স্ট্যান্ডিং টিকিটে সাড়ে আট হাজার যাত্রী যাচ্ছেন। এছাড়া ২৫টি লোকাল, মেইল ও কমিউটার ট্রেন রয়েছে। এসব ট্রেনে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে অনেক বেশি মানুষ ঢাকা ছাড়ছেন। রোববার ৭ এপ্রিল ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনে নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। ছাদে যাত্রী যাওয়া প্রসঙ্গে মাসুদ সারওয়ার বলেন, শুধু ঈদ নয়, সব সময়ই ট্রেনের ছাদে চড়ে ভ্রমণ করা সম্পূর্ণভাবে নিষেধ। তিনি আরও বলেন, সার্বিকভাবে আমরা এখন পর্যন্ত সবকিছু ধরে রাখতে পেরেছি। আগামী দুদিনও এমন সুষ্ঠু পরিবেশ থাকবে বলে প্রত্যাশা করছি। স্টেশনের ভেতরে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যাত্রীরা স্টেশনে বসে অপেক্ষা করছেন। এখন পর্যন্ত ঈদযাত্রার ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় না থাকায় অভিযোগ নেই যাত্রীদের। প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে ৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে গত ২৫ মার্চ ও ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ। ঈদের আগে আন্তঃনগর ট্রেনের ৭ এপ্রিলের টিকিট ২৮ মার্চ, ৮ এপ্রিলের টিকিট ২৯ মার্চ ও ৯ এপ্রিলের টিকিট ৩০ মার্চ বিক্রি করা হয়েছে। এছাড়া চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

রাজধানীর মতিঝিলে লক্ষ্মী নারায়ণ জিউ মন্দিরের ২০০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার

ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রায় কমলাপুর স্টেশনে বেড়েছে যাত্রীর চাপ

Update Time : ০১:০৯:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

শহীদুল হাকিম চৌধূরী: ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রার পঞ্চম দিনে কমলাপুরে বেড়েছে যাত্রীর চাপ। অতিরিক্ত যাত্রী চাপ সামাল দিতে ট্রেন না বাড়ালে অতিরিক্ত কোচ যুক্ত করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

৭ এপ্রিল রোববার সকাল থেকেই কমলাপুর স্টেশনে কড়াকড়ি মধ্যে হাজার হাজার যাত্রী স্টেশনে প্রবেশ করছেন। টিকিট ছাড়া কোন যাত্রীকে স্টেশনে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছেনা। বিনা টিকিটের যাত্রীদের ফেরত পাঠাচ্ছেন রেল কর্মকর্তারা। টিকিট ব্যতীত কেউ ঢুকতে না পারায় স্বস্তিতে স্টেশনে ঢুকতে ও ট্রেনে উঠতে পারছেন যাত্রীরা। স্টেশনের ভেতরে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যাত্রীরা স্টেশনে বসে অপেক্ষা করছেন। এখন পর্যন্ত ঈদযাত্রার ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় হয়নি।

সকাল ৬টা থেকে ঢাকা (কমলাপুর) রেলস্টেশন থেকে সকাল সাড়ে পর্যন্ত ছেড়ে গেছে ১৮টি ট্রেন। আজ রোববার আন্তঃনগর ৪২, লোকাল-কমিউটার ২৫টি ট্রেন ও ১টি স্পেশাল ট্রেন কমলাপুর স্টেশন ছেড়ে যাবে। ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার শাহাদাৎ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সকাল থেকে এ পর্যন্ত ১৮টি ট্রেন যথাসময়ে ছেড়ে গেছে। অন্যদিকে সাড়ে ১০টায় কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস, বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে সিলেটের উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস, বেলা সাড়ে ১১টায় তারাকান্দির উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে অগ্নিবীণা এক্সপ্রেস এবং বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে খুলনার উদ্দেশ্য ছেড়ে যাবে নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস। প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে ৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে গত ২৫ মার্চ ও ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ। ঈদের আগে আন্তঃনগর ট্রেনের ৭ এপ্রিলের টিকিট ২৮ মার্চ, ৮ এপ্রিলের টিকিট ২৯ মার্চ ও ৯ এপ্রিলের টিকিট ৩০ মার্চ বিক্রি করা হয়। এছাড়া চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে।

এদিকে ঈদ উপলক্ষে ট্রেনযাত্রার বিষয়ে ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক (ম্যানেজার) মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার বলেছেন, প্রতিদিন ট্রেনে করে ঢাকা ছাড়ছেন প্রায় দুই লাখ মানুষ। আজ ঢাকা ও আশপাশের স্টেশন থেকে ৬৯টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। এর মধ্যে ৪৪টি আন্তঃনগর ট্রেনে সিটের যাত্রী ৩৩ হাজার ৫০০ জন। এ যাত্রীর অনুপাতে ২৫ শতাংশ স্ট্যান্ডিং টিকিটে সাড়ে আট হাজার যাত্রী যাচ্ছেন। এছাড়া ২৫টি লোকাল, মেইল ও কমিউটার ট্রেন রয়েছে। এসব ট্রেনে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে অনেক বেশি মানুষ ঢাকা ছাড়ছেন। রোববার ৭ এপ্রিল ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনে নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। ছাদে যাত্রী যাওয়া প্রসঙ্গে মাসুদ সারওয়ার বলেন, শুধু ঈদ নয়, সব সময়ই ট্রেনের ছাদে চড়ে ভ্রমণ করা সম্পূর্ণভাবে নিষেধ। তিনি আরও বলেন, সার্বিকভাবে আমরা এখন পর্যন্ত সবকিছু ধরে রাখতে পেরেছি। আগামী দুদিনও এমন সুষ্ঠু পরিবেশ থাকবে বলে প্রত্যাশা করছি। স্টেশনের ভেতরে দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন প্রান্তের যাত্রীরা স্টেশনে বসে অপেক্ষা করছেন। এখন পর্যন্ত ঈদযাত্রার ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় না থাকায় অভিযোগ নেই যাত্রীদের। প্রসঙ্গত, ঈদ উপলক্ষে ৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে গত ২৫ মার্চ ও ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ। ঈদের আগে আন্তঃনগর ট্রেনের ৭ এপ্রিলের টিকিট ২৮ মার্চ, ৮ এপ্রিলের টিকিট ২৯ মার্চ ও ৯ এপ্রিলের টিকিট ৩০ মার্চ বিক্রি করা হয়েছে। এছাড়া চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে।