Dhaka ০৩:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন: তথ্যমন্ত্রী

  • Reporter Name
  • Update Time : ০২:০৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩
  • 8

সূর্যোদয় প্রতিবেদক : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন। তাদের বলবো ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলার। ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে এক প্রার্থীর ওপর হামলায় ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতরা দলবদ্ধ হয়ে যে বিবৃতি দিয়েছেন তা সুস্পষ্টভাবে ভিয়েনা কনভেনশন নীতিমালা লঙ্ঘন বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

২০ জুলাই বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ইনস্টিটিউট প্রকাশিত সাংবাদিকের স্মৃতিভাষ্যে বঙ্গবন্ধু সংকলন গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন। তাদের বলবো ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলার। একইসঙ্গে ফখরুলের বক্তব্যে এটি স্পষ্ট যে তারা সহিংসতার রাজনীতি করতে চান, যা তারা শুরুও করেছেন। তবে সরকার তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে।

ঢাকাস্থ বিভিন্ন দূতাবাসের কয়েকজন রাষ্ট্রদূত যে বিবৃতি দিয়েছেন সে বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, প্রথমত ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতরা যেভাবে বিবৃতি দিয়েছেন, যা রাজনৈতিক দলের মতো রাষ্ট্রদূতদের জোটবদ্ধ হয়ে বিবৃতি দেওয়া, এটি রাষ্ট্রদূতদের আচরণবিধি যে ভিয়েনার কনভেনশন আছে সেটি সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। আমি বন্ধু রাষ্ট্রদের অনুরোধ জানাবো ভিয়েনার কনভেনশন মেনে চলার।এ সময় প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, ভারতে কিংবা পাকিস্তানে যখন সহিংসতা হয় বা আশপাশের দেশে যখন সহিংসতা হয় সেখানে তো রাষ্ট্রদূতরা এভাবে বিবৃতি দেয় না। আমাদের দেশে কেন এভাবে বিবৃতি দেওয়া হচ্ছে। এগুলো আসলে আমাদের দেশের কিছু রাজনৈতিকদল, সুশীল সমাজের কেউ কেউ তাদের প্ররোচনা করেন। তাই রাষ্ট্রদূতদের দোষারোপ করার আগে, আমি মনে করি যারা তাদের প্ররোচনা করেন তারা দায়ী। তবে অবশ্যই কূটনীতিক ক্ষেত্রে রাষ্ট্রদূতদের আচরণ ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলা প্রয়োজন।

গত দুইদিনের পদযাত্রায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন- সরকার যদি পদত্যাগ না করে তাহলে আমাদের আন্দোলন শান্তিপূর্ণ থাকবে না সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের বক্তব্যে এটি স্পষ্ট ওনারা সহিংসতা করতে চান, সহিংসতা শুরু করেছেন, সহিংসতা শুরু করলে সরকার বসে থাকবে না। যারা সহিংসতা করবে, দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরি করবে, তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে। একইসঙ্গে যারা সহিংসতার সৃষ্টি করবে আমাদের দলও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে থাকবে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন: তথ্যমন্ত্রী

Update Time : ০২:০৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই ২০২৩

সূর্যোদয় প্রতিবেদক : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন। তাদের বলবো ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলার। ঢাকা-১৭ আসনের উপনির্বাচনে এক প্রার্থীর ওপর হামলায় ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতরা দলবদ্ধ হয়ে যে বিবৃতি দিয়েছেন তা সুস্পষ্টভাবে ভিয়েনা কনভেনশন নীতিমালা লঙ্ঘন বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

২০ জুলাই বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ইনস্টিটিউট প্রকাশিত সাংবাদিকের স্মৃতিভাষ্যে বঙ্গবন্ধু সংকলন গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রদূতরা রাজনৈতিক দলের মত আচরণ করছেন। তাদের বলবো ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলার। একইসঙ্গে ফখরুলের বক্তব্যে এটি স্পষ্ট যে তারা সহিংসতার রাজনীতি করতে চান, যা তারা শুরুও করেছেন। তবে সরকার তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে।

ঢাকাস্থ বিভিন্ন দূতাবাসের কয়েকজন রাষ্ট্রদূত যে বিবৃতি দিয়েছেন সে বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, প্রথমত ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতরা যেভাবে বিবৃতি দিয়েছেন, যা রাজনৈতিক দলের মতো রাষ্ট্রদূতদের জোটবদ্ধ হয়ে বিবৃতি দেওয়া, এটি রাষ্ট্রদূতদের আচরণবিধি যে ভিয়েনার কনভেনশন আছে সেটি সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। আমি বন্ধু রাষ্ট্রদের অনুরোধ জানাবো ভিয়েনার কনভেনশন মেনে চলার।এ সময় প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, ভারতে কিংবা পাকিস্তানে যখন সহিংসতা হয় বা আশপাশের দেশে যখন সহিংসতা হয় সেখানে তো রাষ্ট্রদূতরা এভাবে বিবৃতি দেয় না। আমাদের দেশে কেন এভাবে বিবৃতি দেওয়া হচ্ছে। এগুলো আসলে আমাদের দেশের কিছু রাজনৈতিকদল, সুশীল সমাজের কেউ কেউ তাদের প্ররোচনা করেন। তাই রাষ্ট্রদূতদের দোষারোপ করার আগে, আমি মনে করি যারা তাদের প্ররোচনা করেন তারা দায়ী। তবে অবশ্যই কূটনীতিক ক্ষেত্রে রাষ্ট্রদূতদের আচরণ ভিয়েনা কনভেনশন মেনে চলা প্রয়োজন।

গত দুইদিনের পদযাত্রায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন- সরকার যদি পদত্যাগ না করে তাহলে আমাদের আন্দোলন শান্তিপূর্ণ থাকবে না সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবের বক্তব্যে এটি স্পষ্ট ওনারা সহিংসতা করতে চান, সহিংসতা শুরু করেছেন, সহিংসতা শুরু করলে সরকার বসে থাকবে না। যারা সহিংসতা করবে, দেশে বিশৃঙ্খলা তৈরি করবে, তাদের কঠোর হস্তে দমন করবে। একইসঙ্গে যারা সহিংসতার সৃষ্টি করবে আমাদের দলও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মাঠে থাকবে।