Dhaka ০১:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জের ভূলতায় বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:৫৫:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩
  • 3284

সূর্যোদয় প্রতিবেদক : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভূলতায় স্টিল মিলে বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সবশেষ ৫ মে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আলমগীর হোসেনের (৩০) মৃত্যু হয়। জানা যায়, শ্রমিকরা ওই মিলে লোহা গলানোর কাজ করছিলেন। হঠাৎ বয়লার বিস্ফোরণে গলিত গরম লোহা শরীরে পড়ে তারা দগ্ধ হন। শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. এসএম আইউব হোসেন বলেন, গতকাল ৪ মে বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জের ভূলতা থেকে ৭ জন দগ্ধ রোগী আসেন তাদের মধ্যে গতকালই একজন মারা গেছেন। এর পর রাতে ইলিয়াস (৩৫) নামে আরও একজন মারা যান। তার শরীরে ৯৮ শতাংশ দগ্ধ ছিল। ৫ মে শুক্রবার সকালে নিয়ন (২০) নামে আরও একজন মারা যান তার শরীরে ৯৫ শতাংশ দগ্ধ ছিল। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আলমগীর হোসেনের মৃত্যু হয়। তার শরীরে ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। বতর্মানে বার্ন ইনস্টিটিউটে আরো ৩ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের সবারই অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান ডা. আইউব। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে ভূলতার গোলাকান্দাইলে রহিমা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কমপ্লেক্স লিমিটেডের স্টিল মিলে বয়লার বিস্ফোরণে সাতজন দগ্ধ হন। দগ্ধদের শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসার পর শংকর (৪০) নামে একজন শ্রমিককে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বর্তমানে তিনজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তারা হলেন- মো. রাব্বি (৩৫), মো. ইব্রাহিম (৩৫) ও মো. জুয়েল (৩৫)। এদের মধ্যে রাব্বির শরীরের ৯৫ শতাংশ পুড়ে গেছে, ইব্রাহিমের ২৮ শতাংশ ও জুয়েলের ৯৭ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

নিউইয়র্কে সেইভ দ্য পিপল’র উদ্যোগে হালাল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

রূপগঞ্জের ভূলতায় বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু

Update Time : ১০:৫৫:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ মে ২০২৩

সূর্যোদয় প্রতিবেদক : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভূলতায় স্টিল মিলে বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় এ পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সবশেষ ৫ মে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আলমগীর হোসেনের (৩০) মৃত্যু হয়। জানা যায়, শ্রমিকরা ওই মিলে লোহা গলানোর কাজ করছিলেন। হঠাৎ বয়লার বিস্ফোরণে গলিত গরম লোহা শরীরে পড়ে তারা দগ্ধ হন। শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. এসএম আইউব হোসেন বলেন, গতকাল ৪ মে বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জের ভূলতা থেকে ৭ জন দগ্ধ রোগী আসেন তাদের মধ্যে গতকালই একজন মারা গেছেন। এর পর রাতে ইলিয়াস (৩৫) নামে আরও একজন মারা যান। তার শরীরে ৯৮ শতাংশ দগ্ধ ছিল। ৫ মে শুক্রবার সকালে নিয়ন (২০) নামে আরও একজন মারা যান তার শরীরে ৯৫ শতাংশ দগ্ধ ছিল। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আলমগীর হোসেনের মৃত্যু হয়। তার শরীরে ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। বতর্মানে বার্ন ইনস্টিটিউটে আরো ৩ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের সবারই অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান ডা. আইউব। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে ভূলতার গোলাকান্দাইলে রহিমা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কমপ্লেক্স লিমিটেডের স্টিল মিলে বয়লার বিস্ফোরণে সাতজন দগ্ধ হন। দগ্ধদের শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসার পর শংকর (৪০) নামে একজন শ্রমিককে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বর্তমানে তিনজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তারা হলেন- মো. রাব্বি (৩৫), মো. ইব্রাহিম (৩৫) ও মো. জুয়েল (৩৫)। এদের মধ্যে রাব্বির শরীরের ৯৫ শতাংশ পুড়ে গেছে, ইব্রাহিমের ২৮ শতাংশ ও জুয়েলের ৯৭ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।