Dhaka ০৭:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম আদালতে ছেলের বিরুদ্ধে লোহাগাড়ার বৃদ্ধ পিতার মামলা

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৯:৫৯:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩
  • 1795

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : ভরণ না দিয়ে জন্মদাতা পিতাকে হত্যার হুমকি, বাড়ীঘর ও সম্পত্তি দখল করে নেয়ার অভিযোগে ছেলের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম আদালতের দারস্থ হলেন লোহাগাড়ার চরম্বা মাইজভিলা এলাকার বয়োবৃদ্ধ এক পিতা। হাফেজ আবুল মোজাফফর (৭৮) নামে এই বৃদ্ধ বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) আদালতে উপস্থিত হয়ে ছেলে মো.ইয়াছিন (৪৫) এর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। চট্টগ্রাম সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফারজানা ইয়াসমিনের আদালতে দায়ের করা এই মামলা সাতকানিয়া থানার ওসিকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। হাফেজ আবুল মোজাফফর (৭৮) লোহাগাড়ার চরম্বা মাইজভিলা এলাকার মৃত মৌলভী লাল মিয়ার ছেলে। তিনি নগরের গণি বেকারি মোড় হযরত মোল্লা মিসকিন শাহ (রাহ.) মসজিদে দীর্ঘদিন ধরে মুয়াজ্জিন হিসেবে কর্মরত আছেন। মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীর আইনজীবী বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের (বিএইচআরএফ) মহাসচিব অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান। মামলায় বৃদ্ধ মুজাফফর অভিযোগ করেন, ২০১৪ সাল থেকে হাফেজ আবুল মোজাফফরের জমি ও ঘর দখলে নিয়ে বসবাস করছে ছেলে মো.ইয়াছিন। সম্পত্তি তার নামে লিখে দেওয়ার জন্য বাবাকে চাপ দিয়েও না পেরে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। বাবার কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে ব্যবসার কথা এবং পরিবারের বিভিন্ন প্রয়োজনে ৩ লাখ ৭ হাজার ৪৩৫ টাকা ধার নেয় ইয়াছিন। সেই টাকাও ফেরৎ দেয়নি। ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকাকালে লোহাগাড়ার আধুনগর সাব রেজিস্ট্রি অফিসে হেবা দলিলে স্বাক্ষর নিয়ে নেয় ইয়াছিন। আইনজীবী অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান জানান, গত ১৫ ফেব্রæয়ারি গ্রামের বাড়িতে ছেলে সব সম্পত্তি নিজের দাবি করে বাবাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এরপর ১৬ মার্চ পুনরায় বাড়িতে গিয়ে ধার নেওয়া টাকা ফেরৎ চাইলে উত্তেজিত হয়ে ছেলে আরও ১০ লাখ টাকা দাবি করে। প্রাণনাশের হুমকি ও ভরণ-পোষণ না দেওয়াসহ একাধিক অভিযোগে ছেলে মো.ইয়াছিন বিরুদ্ধে বৃদ্ধ বাবা হাফেজ আবুল মোজাফফর আদালতে মামলার আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে মামলাটি গ্রহণ করেন এবং লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।

Tag :
সর্বাধিক পঠিত

https://dainiksurjodoy.com/wp-content/uploads/2023/12/Green-White-Modern-Pastel-Travel-Agency-Discount-Video5-2.gif

সৌদি আরবে প্রাইভেট কারের ধাক্কায় লোহাগাড়ার এক তরুণের মৃত্যু

চট্টগ্রাম আদালতে ছেলের বিরুদ্ধে লোহাগাড়ার বৃদ্ধ পিতার মামলা

Update Time : ০৯:৫৯:৩১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩

লোহাগাড়া প্রতিনিধি : ভরণ না দিয়ে জন্মদাতা পিতাকে হত্যার হুমকি, বাড়ীঘর ও সম্পত্তি দখল করে নেয়ার অভিযোগে ছেলের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম আদালতের দারস্থ হলেন লোহাগাড়ার চরম্বা মাইজভিলা এলাকার বয়োবৃদ্ধ এক পিতা। হাফেজ আবুল মোজাফফর (৭৮) নামে এই বৃদ্ধ বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) আদালতে উপস্থিত হয়ে ছেলে মো.ইয়াছিন (৪৫) এর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। চট্টগ্রাম সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফারজানা ইয়াসমিনের আদালতে দায়ের করা এই মামলা সাতকানিয়া থানার ওসিকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। হাফেজ আবুল মোজাফফর (৭৮) লোহাগাড়ার চরম্বা মাইজভিলা এলাকার মৃত মৌলভী লাল মিয়ার ছেলে। তিনি নগরের গণি বেকারি মোড় হযরত মোল্লা মিসকিন শাহ (রাহ.) মসজিদে দীর্ঘদিন ধরে মুয়াজ্জিন হিসেবে কর্মরত আছেন। মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীর আইনজীবী বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের (বিএইচআরএফ) মহাসচিব অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান। মামলায় বৃদ্ধ মুজাফফর অভিযোগ করেন, ২০১৪ সাল থেকে হাফেজ আবুল মোজাফফরের জমি ও ঘর দখলে নিয়ে বসবাস করছে ছেলে মো.ইয়াছিন। সম্পত্তি তার নামে লিখে দেওয়ার জন্য বাবাকে চাপ দিয়েও না পেরে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। বাবার কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে ব্যবসার কথা এবং পরিবারের বিভিন্ন প্রয়োজনে ৩ লাখ ৭ হাজার ৪৩৫ টাকা ধার নেয় ইয়াছিন। সেই টাকাও ফেরৎ দেয়নি। ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকাকালে লোহাগাড়ার আধুনগর সাব রেজিস্ট্রি অফিসে হেবা দলিলে স্বাক্ষর নিয়ে নেয় ইয়াছিন। আইনজীবী অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহসান জানান, গত ১৫ ফেব্রæয়ারি গ্রামের বাড়িতে ছেলে সব সম্পত্তি নিজের দাবি করে বাবাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এরপর ১৬ মার্চ পুনরায় বাড়িতে গিয়ে ধার নেওয়া টাকা ফেরৎ চাইলে উত্তেজিত হয়ে ছেলে আরও ১০ লাখ টাকা দাবি করে। প্রাণনাশের হুমকি ও ভরণ-পোষণ না দেওয়াসহ একাধিক অভিযোগে ছেলে মো.ইয়াছিন বিরুদ্ধে বৃদ্ধ বাবা হাফেজ আবুল মোজাফফর আদালতে মামলার আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে মামলাটি গ্রহণ করেন এবং লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।